আন্তজার্তিক

ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪২, বাংলাদেশের শোক

গত ১৫ জানুয়ারি শুক্রবার ভোরে ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপে শক্তিশালী ৬ দশমিক ২ মাত্রার ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২ জনে। সেখানে হাসপাতাল সহ বিধস্ত হয়েছে বহু ঘড়বাড়ি এ সময় ভূমিকম্প আতঙ্কে লোকজন ভবন ছেড়ে নিরাপদ স্থানের দিকে ছোটেন। এতে এখন পর্যন্ত আট শতাধিক মানুষ আহত হয়েছে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার ভোরের ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল মাজনে শহর থেকে ৬ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে। ভূমিকম্পের স্থায়িত্ব সময় ছিল ৭ সেকেন্ড। ভূস্থল থেকে ১০ কিলোমিটার গভীরে এর উঠপত্তিস্থল ছিল বলে জানিয়েছেন ইন্দোনেশিয়ার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা নিয়ন্ত্রণ সংস্থা।

গণমাধ্যমের তথ্য মতে, ম্যাজেনে শহরে এখন পর্যন্ত ২৬ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে এবং আহত হয়েছে ৬০০ জন। আর সুলাওয়েসির পশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকায় আরো আটজনের মৃত্যু হয় এবং ২৪ জন মানুষ আহত হয়েছে। মামুজুর দুর্যোগ প্রশমন সংস্থার প্রধান আলি রহমান এএফপিকে জানান, ‘এই ভূমিকম্পের ফলে অন্তত ১৫ হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছাড়া হয়েছেন। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে, তবে আমরা আশা করি তা হবে না। অনেকেই ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েছেন।’ উক্ত ভূমিকম্পের ঘটনায় গভীর শোক এবং সমবেদনা প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

লিখিত এক বার্তায় তিনি জানান, ভূমিকম্পে মর্মান্তিক প্রাণনাশের ঘটনায় ইন্দোনেশিয়ান সরকার, ইন্দোনেশিয়ার ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণ এবং বিশেষত শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানিয়েছেন মোমেন। এদিকে ইন্দোনেশিয়ার কাছে পাঠানো সেই বার্তায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন জানান যে, ইন্দোনেশিয়ার সহিষ্ণু ও সাহসী মানুষেরা তাদের বাড়িঘর ও অবকাঠামো সফলভাবে পুননির্মাণ করে এই বিপর্যয় মোকাবেলা করে স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় ফিরবে বলে প্রার্থনা এবং আশা ব্যক্ত করেন। উল্লেখ্য, দ্বীপ দেশ ইন্দোনেশিয়া ভূমিকম্পন প্রবণ একটি অঞ্চল। দেশটিতে ২০১৮ সালে সুলাওয়েসির পালু শহরে ৬ দশমিক ২ মাত্রার ভূমিকম্পের পর সুনামি আঘাত হানে। এতে প্রাণ হারায় হাজারো মানুষ ।

এমন আরো তথ্য পেতে চোখ রাখুন: http://facebook.com/rajtvbd

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button