আন্তজার্তিক

হাসপাতালে ঠাঁই না পেয়ে ক.র.না রোগীর আত্মহত্যা

গোটা ভারত করোনার দ্বিতীয় দফার প্রকোপে বিপর্যস্ত। হাসপাতালে বেড এবং অক্সিজেনের সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে। করোনা আক্রান্ত অনেকের হাসপাতালে ঠাঁই মিলছে না। এমন এক যুবক হাসপাতালে ভর্তি হতে না পেরে আত্মহত্যা করেছে শুক্রবার।  

ওই যুবক ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা। উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্স চালক তিনি। পেশার কারণে অনেক করোনা রোগীকে দেখেছেন কাছ থেকে। কিন্তু নিজে আক্রান্ত হওয়ার পর হাসপাতালে জায়গা না পেয়ে আত্মহত্যা করেন।

পশ্চিমবঙ্গের গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদন অনুযায়ী, অ্যাম্বুলেন্স চালক যুবকের নাম রিন্টু পাল। তার বয়স ৩১ বছর। মহামারি করোনার উপসর্গ দেখা দেওয়ায় পরীক্ষা করানোর পর গতকাল বৃহস্পতিবার তিনি করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর জানতে পারেন।

শিলিগুড়ির নকশালবাড়ি ব্লকের রাঙাপানি ব্লকের বাসিন্দা রিন্টু পাল অনেকদিন ধরেই অ্যাম্বুলেন্স চালান। বৃহস্পতিবার করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর তিনি স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হতে যান। কিন্তু হাসপাতালে ঠাঁই হয় না। আর তাতেই ভেঙে পড়েন।

রিন্টুর বাবা রতন পাল জানান, বৃহস্পতিবার রাতে ফুলবাড়ি ব্যারেজের কাছে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন রিন্টু। কিন্তু সে যাত্রায় বেঁচে যায়। তারপর আজ শুক্রবার সকালে নিজের বাড়িতেই গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি।

এমন আরো তথ্য পেতে চোখ রাখুন: https://www.facebook.com/rajtvbd

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button